FASHON
  • হেঁশেলসূত্র I ঈদ আপ্যায়নে

    আপ্যায়নের শুরুতেই ঠান্ডা কিছু। মেইন ডিশে ট্র্যাডিশনাল পদ না থাকলেই নয়। সবশেষে একটু মিষ্টিমুখ। এমন দশটি পদ নিয়ে হাজির হয়েছেন উম্মাহ মোস্তফা

    ছবি: তানভীর খান

    আনার-মাল্টা ফিউশন
    উপকরণ: আনার (দানা) ১টা, মাল্টা ২টা, চিনি ২ টেবিল-চামচ, লবণ স্বাদমতো, লেবু (রস) ১ টেবিল-চামচ ও সামান্য বরফ
    প্রণালি: প্রথমে দুই ধরনের ফল খোসা ছাড়িয়ে আলাদা করে ব্লেন্ড করতে হবে। তারপর চিনি, বরফ ও লেবুর রসসহ ব্লেন্ড করতে হবে। এবার গ্লাসে লেয়ারে লেয়ারে ড্রিংকস ঢেলে পরিবেশন করুন।


    আঙুর-পুদিনা ঠান্ডাই

    উপকরণ: ঠান্ডা পানি ২ কাপ, বরফ সামান্য, চিনি ২ টেবিল-চামচ, পুদিনা সিকি কাপ, আঙুর সিকি কাপ, লবণ স্বাদমতো, লেবুর রস ২ টেবিল-চামচ।
    প্রণালি: সব উপকরণ একত্রে মিলিয়ে পরিবেশন করুন।


    সাতকড়া গরুর মাংস

    উপকরণ: গরুর মাংস ১ কেজি, এলাচি ৬ থেকে ৮টি, দারুচিনি ৪ পিস, সাদা গোলমরিচের গুঁড়া ১ চা-চামচ, কাঁচা মরিচ বাটা ১ চা-চামচ, লবঙ্গ ১০ থেকে ১২ পিস, তেল আধা কাপ, মরিচের গুঁড়া ১ টেবিল-চামচ, ধনে গুঁড়া ১ টেবিল-চামচ, হলুদ গুঁড়া ১ চা-চামচ, আদা বাটা ১ টেবিল-চামচ, রসুন বাটা ১ টেবিল-চামচ, টালা জিরা গুঁড়া আধা চা-চামচ, সাদা সরিষা বাটা আধা কাপ, পোস্তদানা বাটা ১ টেবিল-চামচ, পেঁয়াজ বেরেস্তা ১ কাপ, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, টমেটো কুচি আধা কাপ, আস্ত মরিচ ৬ থেকে ৮টি, ঘি ২ টেবিল-চামচ, সাতকড়া অর্ধেক।
    প্রণালি: পাত্রে তেল গরম করে তাতে পেঁয়াজ ভাজতে হবে। পেঁয়াজ বাদামি রঙের হলে তাতে টমেটো কুচি দিন। অন্যদিকে সাতকড়া কেটে গরম পানিতে ১০ থেকে ১৫ মিনিট সেদ্ধ করে নিন। টমেটোর পানি টেনে গেলে, সব বাটা ও গুঁড়া মসলা দিয়ে ২ বার কষিয়ে নিন। এবার মাংস দিয়ে একবার কষিয়ে নিন। পরিমাণমতো পানি দিয়ে ৩৫ থেকে ৮০ মিনিট সেদ্ধ করুন। হয়ে গেলে ঘি ও কাঁচা মরিচ, সেদ্ধ সাতকড়া দিন। বেরেস্তা, টালা জিরা গুঁড়া দিয়ে ৫ মিনিট দমে রেখে নামিয়ে পরিবেশন করুন।

     

    কোকোনাট ব্লুবেরি ট্রাইফল

    উপকরণ: নারকেল দুধ ১ ক্যান, গুঁড়া নারকেল ১ কাপের একটু কম, গুঁড়া চিনি সিকি কাপ, স্বাদ ছাড়া জিলোটিন ২ টেবিল-চামচ, ভ্যানিলা ১ চা-চামচ, ব্লুবেরি জেলি ১ কাপ।
    প্রণালি: ব্লুবেরি বাদে বাকি উপকরণ একত্রে মিশিয়ে জ্বাল দিয়ে ঘন করে নামাতে হবে। পরিবেশন পাত্রে এক লেয়ারে কোকোনাট মিশ্রণ আর তার উপরে ব্লুবেরি জেলি দিয়ে লেয়ারে লেয়ারে পছন্দমতো সাজিয়ে পরিবেশন করুন।


    নারকেল দুধে মুরগির মাংসের কষা

    উপকরণ: মুরগির মাংস ১টা (১২ পিস করে নিতে হবে), মরিচ গুঁড়া ১ চা-চামচ, হলুদ ১ চা-চামচ, ধনে গুঁড়া ১ চা-চামচ, গরমমসলা আধা চা-চামচ, আদা বাটা ১ চা-চামচ, রসুন কুচি ১ চা-চামচ, তেল সিকি কাপ, নারকেল দুধ ২ কাপ, ধনে পাতা কুচি অল্প, লবণ স্বাদমতো, পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, পেঁয়াজ বাটা আধা কাপ।
    প্রণালি: তেল গরম করে তাতে পেঁয়াজ কুচি দিয়ে ভাজতে হবে। বাদামি হলে পেঁয়াজ বাটা দিয়ে দিতে হবে। পানি শুকিয়ে গেলে সব গুঁড়া আর বাটা মসলা দিয়ে দিন। এখন নারকেল দুধ দিয়ে ২ বার কষিয়ে মুরগির মাংস অল্প আঁচে রান্না করুন। হয়ে গেলে নামিয়ে ধনে পাতা কুচি দিয়ে পরিবেশন করুন।


    তিন লেয়ার মুজ

    উপকরণ: ডিমের কুসুম ৬টা, চিনি সিকি কাপ, দুধ ১ কাপ, ভ্যানিলা ১ চা-চামচ, ডার্ক চকলেট ১০০ গ্রাম, সাদা চকলেট ১০০ গ্রাম, মিল্ক চকলেট ১০০ গ্রাম ও জেলোটিন ২ টেবিল-চামচ।
    প্রণালি: ডিমের কুসুম, চিনি, দুধ নিয়ে একটা হাঁড়িতে গরম করে অনবরত নাড়তে হবে। ঘন হয়ে এলে নামিয়ে ভ্যানিলা মেশাতে হবে। এবার এই মিশ্রণ তিন ভাগে ভাগ করে নিন। প্রতি ভাগে আলাদা ডার্ক, সাদা ও মিল্ক চকলেট মিশিয়ে পরিবেশন জারে লেয়ারে লেয়ারে সাজাতে হবে। ফ্রিজে রেখে ঠান্ডা করে পরিবেশন করুন।


    চুই ঝালের গরু ভুনা

    উপকরণ: গরুর মাংস ১ কেজি, লাল মরিচ বাটা ১ টেবিল-চামচ, হলুদ বাটা ১ চা-চামচ, ধনে বাটা ২ টেবিল-চামচ, গরমমসলা বাটা (এলাচি ৪টা, লং ১০টা, দারুচিনি ২টা

     ও গোলমরিচ ১ চা-চামচ), টালা জিরা বাটা ১ চা-চামচ, আদা বাটা ১ টেবিল-চামচ, রসুন বাটা ১ চা-চামচ, রসুন কুচি ১ টেবিল-চামচ প্রথমবার এবং ১ চা-চামচ করে দ্বিতীয় ও তৃতীয়বার, পেঁয়াজ বেরেস্তা ১ কাপ, লবণ স্বাদমতো, রেগুলার চুই ২টা বড় স্টিক, সয়াবিন বা সরিষার তেল আধা কাপ।
    প্রণালি: গরুর মাংসের সঙ্গে বাটা লাল মরিচ, হলুদ, ধনে বাটা ও লবণ দিয়ে ভালো করে মাখিয়ে চুলায় বসিয়ে দিতে হবে। পানি বের হতে শুরু হলে তাতে আদা, রসুন বাটা, গরমমসলা বাটা, জিরা বাটা, রসুন কুচি দিতে হবে। মাংসের পানি শুকানো অব্দি অপেক্ষা করতে হবে। পানি শুকিয়ে গেলে তাতে তেল দিয়ে আরও ১ চা-চামচ রসুন কুচি দিতে হবে। ৫ মিনিট মাংস ভেজে, প্রেসারকুকারে দিয়ে তাতে বেরেস্তা আর দেড় কাপ পানি দিন। ১০টা সিটি বাজলে সেটা নামিয়ে চুই ঝাল ৩ ইঞ্চি লম্বা করে কেটে দিতে হবে এবং বাকি ১ চা-চামচ রসুন কুচি দিতে হবে। দমে ৩ থেকে ৫ মিনিট রেখে নামিয়ে পরিবেশন করুন।


    পেপারমিন্ট ট্রাইফল

    ধাপ ১
    উপকরণ: ওরিও কুকিজের গুঁড়া আধা কাপ, গোলানো মাখন সিকি কাপ
    প্রণালি: সব একত্রে মাখিয়ে গ্লাস কিংবা পাত্রের প্রথম লেয়ারে রাখতে হবে।
    ধাপ ২
    উপকরণ: ক্রিম চিজ ১ কাপ, নরম মাখন সিকি কাপ, গুঁড়া চিনি সিকি কাপ, পেপারমিন্ট এসেন্স ১ টেবিল-চামচ।
    প্রণালি: সব একসঙ্গে মিশিয়ে ভালো করে বিট করে পাইপিং ব্যাগে ভরে ২য় লেয়ারে ডিজাইন করে সাজান। ঠান্ডা হলে পরিবেশন করুন।


    ফিশ কোফতা

    ধাপ ১
    উপকরণ: কাঁটা ছাড়ানো সেদ্ধ রুই মাছ ১ কাপ, পাউরুটি ২ পিস, কাঁচা মরিচ কুচি ১টা, লবণ স্বাদমতো।
    প্রণালি: রুই মাছগুলোকে লেবুর রস দিয়ে ১০ থেকে ২০ মিনিট মাখিয়ে, আদা-রসুন বাটা ও পানি দিয়ে সেদ্ধ করে নিতে হবে। সেদ্ধ হলে মাছের কাঁটা বেছে নিতে হবে। এখন পাউরুটি পানিতে ভিজিয়ে চিপে নিতে হবে এবং বাকি 

    উপকরণ একত্রে মিশিয়ে মাখতে হবে। তারপর গোল গোল বল করে সরিষার তেলে ফ্রাই করে নিন।
    ধাপ ২
    উপকরণ: পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, টমেটো কুচি ১টা, লাল মরিচ গুঁড়া ১ চা-চামচ, হলুদ গুঁড়া আধা 

    চা-চামচ, ধনে গুঁড়া ১ চা-চামচ, মাছের কারি পাউডার ১ চা-চামচ, আদা ও রসুন বাটা দেড় চা-চামচ, কিশমিশ সামান্য, ধনে পাতা কুচি ২ টেবিল-চামচ, কাজু বাদাম বাটা ১ টেবিল-চামচ, চিনি ১ চা-চামচ, দই সিকি কাপ, লেবুর রস ১ টেবিল-চামচ, আস্ত কাঁচা মরিচ ৩ থেকে ৪টা।
    প্রণালি: তেল গরম করে তাতে পেঁয়াজ কুচি দিতে হবে। পেঁয়াজ লালচে হলে তাতে টমেটো কুচি দিন। টমেটো থেকে পানি বের হতে থাকলে, তাতে সব বাটা ও গুঁড়া মসলা এবং দই দিয়ে কষিয়ে নিন। এবার ধাপ ১-এর ভেজে রাখা কোফতা দিন। একটু পানি দিয়ে ৫ থেকে ৮ মিনিট অল্প আঁচে রান্না করুন। হয়ে গেলে আস্ত মরিচ, কিশমিশ, লেবুর রস, চিনি ও ধনেপাতা কুচি দিয়ে নামিয়ে পরিবেশন করুন।
    ফিশ কারির মাসালা
    উপকরণ: মৌরি ১ চা-চামচ, রাঁধুনি ১ চা-চামচ, পোস্তদানা ১ চা-চামচ, আস্ত ধনিয়া ১ চা-চামচ।
    প্রণালি: সব উপকরণ ১ মিনিট করে টেলে, ব্লেন্ড করে নিলেই ফিশ কারির মাসালা রেডি।

    কিভি লেমন অরেঞ্জ ডিলাইটস

    উপকরণ: ঠান্ডা পানি ২ কাপ, চিনি ২ টেবিল-চামচ, বরফ সামান্য, কমলার রস ১ কাপ, কিভি (চাক করে কাটা) ২টা, কমলা (চাক করে কাটা) ১টা, লেবু (চাক করে কাটা) ১টা, লেবুর রস ২ টেবিল-চামচ, লবণ পরিমাণমতো।
    প্রণালি: সব উপকরণ একত্রে মিলিয়ে পরিবেশন করুন।


    Subscribe & Follow

    JOIN THE FAMILY!

    Subscribe and get the latest about us
    TRAVELS
    LIFESTYLE
    RECENT POST
    চিত্রকর্মে
    23 September, 2017 6:39 pm
    নখ দিয়ে রেকর্ড
    23 September, 2017 6:27 pm
    BANNER SPOT
    200*200
    SOLO PINE @ INSTRAGRAM
    FIND US ON FACEBOOK