FASHON
  • পার্টি টাস্ক I হ্যালো হ্যালোউইন

    ভুতুড়ে ভেলকি, নাকি পুরোনো প্রথার উৎসবসম্মত প্রত্যাবর্তন? যা-ই হোক, এ যে উদ্যাপনের দারুণ এক উপলক্ষ

    শীতের সময় মৃতরা মর্ত্যে নেমে আসে। এমন থেকেই একসময় পালন করা হতো হ্যালোউইন। ভূত ভাগাতে অদ্ভুত সব মুখোশ পরার পাশাপাশি রাতে বাড়ি থেকে বেরিয়ে পড়ারও প্রচলন ছিল সে সময়। সন্ধ্যা নামতেই ঘরের বাইরে রকমারি খাবার রাখার প্রথাও ছিল জনপ্রিয়। মূলত লোকবিশ্বাস, রহস্য, জাদু আর কুসংস্কার থেকে উদ্যাপনের শুরুটা হলেও হ্যালোউইন পাশ্চাত্যে, বিশেষত খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের মধ্যে হালের সবচেয়ে জনপ্রিয় পার্টিগুলোর একটি। বাচ্চা থেকে বুড়ো- সব বয়সীদের কাছে। বাংলাদেশেও এর চল শুরু হয়েছে।

    ইন ইনভাইটেশন
    ফ্রাইট অ্যান্ড ফান- দুটোই থাকা চাই ইনভাইটেশনে। যেন ভুতুড়ে ভাবটা বোঝা যায় পুরোদমে। কালার, ডিটেইল, ডিজাইন কিংবা ফন্ট থিম অনুযায়ী কাস্টমাইজ করে নিলেই হবে। উৎস ও প্রেরণার জন্য তো অনলাইন আছেই। পিনটারেস্ট, টাম্বলারসহ সব সাইটে বিভিন্ন ডিজাইনের হরেক রকম হ্যালোউইন কার্ড মিলবে। মজার সব মনস্টার ম্যাশ, বাদুড়, ড্রাকুলা, ডাইনি থেকে মাকড়ির জাল- সবই দারুণ দেখাবে কার্ডে। সুপার হিরো আর মার্ভেলের সব ক্যারেক্টারও হ্যালোউইন কার্ড তৈরির জন্য চমৎকার অপশন। আকর্ষণীয় হওয়া চাই আমন্ত্রণের আহ্বানও। ভাষাটা সহজ আর সৃষ্টিশীল হলে ভালো। হতে হবে ট্রেন্ডি এবং একদম অন পয়েন্ট। পার্টির ভেন্যু, সময়, তারিখ আর ঠিকানার উল্লেখ থাকতে হবে। নির্দিষ্ট থিম কিংবা পোশাক পরার ব্যাপার থাকলে তাও লেখা থাকা চাই কার্ডে। টেম্পলেট বা প্রিন্টেবল ডিজাইনগুলো ছাপিয়ে তাও পাঠানো যেতে পারে আমন্ত্রণ জানানোর জন্য।


    থিম থ্রিল
    পিকচার পারফেক্ট পার্টির জন্য থাকা চাই পরিকল্পনা। সে অনুযায়ী হবে হ্যালোউইন থিম। ভুতুড়ে পরিবেশ সৃষ্টির জন্য সৃষ্টিশীলতা যেমন জরুরি, ঠিক তেমনি মজা করার আগ্রহও থাকতে হবে। রহস্যময় আবহ তৈরি করতে চাইলে মিস্ট্রি পার্টি সবচেয়ে জুতসই। ভুতুড়ে, কিন্তু খুব ভয়ংকরভাবে হ্যালোউইন উদ্যাপন করতে না চাইলে শ্যাডো থিমড পার্টির আয়োজন করা যেতে পারে। একদম ক্ল্যাসিক পার্টি করতে চাইলে পাম্পকিন কার্ভিং পার্টি কিংবা অভিজাত হার্ভেস্ট পার্টিই ভালো। যাদের জাদু পছন্দ, তাদের জন্য হ্যারি পটার থিমড পার্টির আয়োজন হতেই পারে হ্যালোউইনে। যাদের তীব্র ভয় পছন্দ, তারা পুরো ঘরটাকেই সাজিয়ে নিতে পারেন হন্টেড হাউজের আদলে। এ ছাড়া ড্রাকুলা কিংবা ডাইনি কিংবা মার্ভেলের ক্যারেক্টার ধরেও থিম সেট করে নেয়া যেতে পারে।
    সেট দ্য সিন
    থিম অনুযায়ী সাজাতে হবে পার্টির পুরোটা। পাম্পকিন পার্টির জন্য কুমড়ার আদলে তৈরি পেপার ক্রাফট দিয়ে সাজানো যেতে পারে গোটা ভেন্যু। হ্যাঙ্গিং পেপার পাম্পকিন দিয়ে ছেয়ে দেয়া যেতে পারে ঘর। পাম্পকিন ক্যান্ডেল হোল্ডার ছাড়াও কুমড়ার পাত্র ব্যবহার করা যায় খাবার আর পানীয় পরিবেশনের জন্য। আস্ত কিছু কুমড়াও কিন্তু বেশ কাজে লাগবে ঘর সাজাতে। ভ্যাম্পায়ার থিমড পার্টির জন্য আগে থেকেই এনে রাখা চাই নকল রক্ত। এ ছাড়া বাদুড়ের আদলে তৈরি ক্রাফট দিয়ে সাজানো যেতে পারে ঘর। আলোছায়ার খেলাও রাখতে হবে ভেন্যুতে। হন্টেড হাউজের ইফেক্ট তৈরি করতে চাইলে ঘরের কোণে কোণে সাজিয়ে রাখুন ভুতুড়ে সব উপকরণ। অতিথিদের অতর্কিত চমক দেয়ার ব্যাপারটা ভীষণ আকর্ষণীয় নিশ্চয়ই। হ্যারি পটার থিমের জন্য হ্যাঙ্গিং ক্যান্ডেল থাকতে হবে। জায়গায় জায়গায় জাদুর ছড়ি, আয়নায় উঁকি দেয়া ভূতের প্রতিচ্ছবি ভীতিকর পরিবেশ সৃষ্টিতে দুর্দান্ত। বিভিন্ন ধরনের কাট আউট, কার্টেন, বাদুড় আর পাখির পাশাপাশি ডাইনির আদলে তৈরি প্রতিচ্ছবিতে তৈরি হবে শ্যাডো পার্টির চমৎকার আবহ। মিস্ট্রি পার্টির জন্য দরকার ক্যাম্প টাইপ আলো-আঁধারি পরিবেশ। মার্ভেলের ক্যারেক্টারগুলোর কাট আউট দিয়ে সাজানো যেতে পারে পার্টি ভেন্যু। এ ছাড়া কমিকের পাতা কেটে নিয়ে চমৎকার ডেকর পিস তৈরি করে তাও রাখা যেতে পারে। ব্যানার আর পোস্টারের ব্যবহারে সহজেই ফুটে উঠবে পার্টি থিমের পুরোটা।
    খাওয়াদাওয়া
    মেন্যুটা হালকা রাখাই ভালো। তাতে চাই হরেক রকমের ফিঙ্গার ফুড। থাকুক ডিপ ফ্রায়েড স্ন্যাকস, স্যান্ডউইচ, প্যাস্ট্রি আর মজার সব মিষ্টি। থাকতে পারে হ্যালোউইন থিমড ক্যান্ডি, কাপ কেক আর ডোনাটের মতো আইটেমগুলো। টাকো, ডেভিলস এগস, শ্রিম্প ককটেল, চিজ প্ল্যাটার, স্লাইডার আর স্কুয়ারও রাখা যায়। তবে খাবারের পরিবেশনায় যেন হ্যালোউইনের সুস্পষ্ট ছাপ থাকে। আর হ্যালোউইন থিমড ককটেল তো থাকতে হবেই। এগুলো পার্টি মুড সেট করার সঙ্গে সঙ্গে মেন্যুকে আরও আকর্ষণীয় করে তুলবে।
    আনন্দ আয়োজনে
    শুধু আড্ডাই নয়, অতিথিদের মনোরঞ্জনে হরেক রকমের খেলাধুলার আয়োজন করা যেতে পারে পার্টিতে। মামি বলিং, পাম্পকিন গলফ, স্কেলেটন পাজল, পপিং পাম্পকিন, স্পাইডার ওয়েব গেম, ওয়াইজা বোর্ডসহ বিচিত্র হ্যালোউইন পার্টি গেমের প্রচলন রয়েছে বিশ্বজুড়ে। হ্যালোউইন প্লে লিস্ট চালিয়ে দেয়া যেতে পারে পার্টিতে। পরিপূর্ণ পার্টি মুড তৈরিতে এর জুড়ি মেলা ভার। হরর মুভি শোরও আয়োজন করা যেতে পারে।
    ক্রেজি কস্টিউম
    হ্যালোউইন হচ্ছে এমন একটা পার্টি, যার আবহ তৈরিতে কস্টিউম গুরুত্বপূর্ণ। থিমের ওপর নির্ভর করে কস্টিউম নির্বাচন করা উচিত। শ্যাডো থিমের পার্টিতে ডাইনি সাজলে দারুণ দেখাবে যে কাউকে। লম্বা কালো গাউন আর উইচ হ্যাট পরে নিলেই হলো। এ ছাড়া ড্রাকুলার জন্য তৈরি পোশাকও পরে নেয়া যেতে পারে পার্টিতে। তাতে অবশ্যই থাকতে হবে একটা উঁচু গলার ভ্যাম্পায়ার কেপ। নিজেকে পুরোটা সাদা কাপড়ে মুড়ে নিয়ে ভূত সাজা যেতে পারে। এ ছাড়া মার্ভেলের ক্যারেক্টারগুলোর মতো সাজতে চাইলে কাস্টমাইজড কস্টিউম তৈরি করে নেয়াই হবে বুদ্ধিমানের কাজ। হাল্ক, ক্যাপ্টেন আমেরিকা, সুপারম্যান, ব্যাটম্যান, জোকার, ওয়ান্ডারওমেন কিংবা ক্যাটওমেন- সবই চমৎকার যায় হ্যালোউইন পার্টির সঙ্গে। সাজটাও হতে হবে যথার্থ। নচেৎ পুরো লুকটাই মাটি। মেকআপ, ফেস পেইন্টিং কিংবা মাস্ক-লুকের সঙ্গে মানিয়ে ব্যবহার করতে হবে যথাযথ উপায়ে। তবেই লুক হবে একদম পার্টি পারফেক্ট।

     জাহেরা শিরীন
    মডেল: শান্ত, সাকিব, সান, আইশা, শ্রাবণী
    মেকওভার: পারসোনা
    ওয়্যারড্রোব: ক্যানভাস
    ছবি: তানভীর খান


    মামি ডগস
    উপকরণ: হট ডগ ৮টি, ব্রেড স্টিক ডো কিংবা পিজ্জা ডো প্রয়োজনমতো, পোস্তদানা ১৬টি, মাস্টার্ড।
    প্রণালি: ৩৭৫ ডিগ্রি ফারেনহাইটে ওভেন প্রি-হিট করে নিন। হট ডগগুলো ডো দিয়ে পেঁচিয়ে মামির আদলে গড়ে নিন। মামির চোখ তৈরির জন্য হট ডগে পোস্তদানা বসিয়ে দিন। তারপর ১২ থেকে ১৫ মিনিট ধরে লাইট গোল্ডেন ব্রাউন করে বেক করে নিন। তৈরি মামি ডগস। মাস্টার্ড দিয়ে পরিবেশন করুন।

    স্পাইডার ডেভিলড এগ
    উপকরণ: ডিম সেদ্ধ ৬টা (অর্ধেক করে কেটে নেয়া), মেয়োনেজ ৩ টেবিল চামচ, সরিষা গুঁড়া আধা চা-চামচ, লবণ পরিমাণমতো, গোলমরিচ পরিমাণমতো, ব্ল্যাক অলিভ প্রয়োজনমতো।
    প্রণালি: প্রতিটি সেদ্ধ ডিম অর্ধেক করে কেটে নিয়ে কুসুমটা বের করে নিতে হবে। এবার কুসুমের সঙ্গে মেয়োনেজ, সরিষা, লবণ আর গোলমরিচ মিশিয়ে ভালো করে ম্যাশ করে নিন। তারপর আবার অর্ধেক করে কাটা ডিমগুলোর ভেতর ম্যাশ করা কুসুমটা পুরে নিন। ব্ল্যাক অলিভগুলো মাকড়সার মতো করে কেটে নিয়ে এর ওপর বসিয়ে দিন। তৈরি স্পাইডার ডেভিলড এগ।


    Subscribe & Follow

    JOIN THE FAMILY!

    Subscribe and get the latest about us
    TRAVELS
    LIFESTYLE
    RECENT POST
    দলীয় চিত্র
    22 October, 2017 3:50 am
    আনুশকার ‘নুশ’
    22 October, 2017 3:50 am
    ব্রণ
    21 October, 2017 10:35 pm
    BANNER SPOT
    200*200
    SOLO PINE @ INSTRAGRAM
    FIND US ON FACEBOOK