FASHON
  • সঙ্গানুষঙ্গ I ট্রান্সপারেন্ট শেডস

    রোদচশমা ট্রেন্ডে নতুনত্ব যোগ করেছে ট্রান্সপারেন্ট সানগ্লাস। নানা শেড আর শেপের

    প্রতিবছরই বদলে যাচ্ছে সানগ্লাসের ডিজাইন। ফ্রেম কিংবা গ্লাস- সবকিছু নিয়েই চলছে নিরীক্ষা। সানগ্লাস বলতে সাধারণত ডার্ক শেডের কাচের চশমা বোঝানো হয়ে থাকে। কিন্তু এখন ট্রান্সপারেন্ট অর্থাৎ স্বচ্ছ সানগ্লাসের ট্রেন্ড।
    এটা টিন্টলেস সানগ্লাস। এতে বিভিন্ন রঙের শেড লক্ষ করা গেলেও তা স্বচ্ছ। তবে অনেক দিনের পুরোনো ওভারসাইজড এবং রাউন্ড শেপের রোদচশমা রয়ে যাচ্ছে এবারের ট্রেন্ডেও। বিশ্বজুড়ে চলছে ভিন্টেজ লুকের জয়জয়কার। ফিরে ফিরে আসছে ৭০ থেকে ৯০ দশকের যত ফ্যাশন। সানগ্লাসেও তাই। বড় এবং মোটা ফ্রেমের সঙ্গে ট্রান্সপারেন্ট গ্লাস মানিয়েও যায় খুব। ক্যাটস আই, ওভাল, বাটারফ্লাই এবং সেমি রিমলেস- সব শেপের সানগ্লাসেই রয়েছে এখন ট্রান্সপারেন্ট গ্লাস। কিছু ফ্রেম আছে ট্রান্সপারেন্ট। এগুলোর মধ্যে হালকা অ্যাশ কিংবা লাইট ব্রাউন রঙের ফ্রেমও দেখা যায়। ক্লিয়ার ফ্রেম চেহারার দিকে দৃষ্টি আকর্ষণে সহায়ক। যেকোনো ডার্ক টোন্ড আউটফিটের কমপ্লিমেন্টেও এটি সক্ষম।
    সানগ্লাস কেনার আগে মুখের সাইজ, গড়ন ও পার্সোনালিটির সঙ্গে মানানসই কি না, তা দেখে নিতে হয়। যেহেতু ট্রান্সপারেন্ট সানগ্লাস সাধারণ সানগ্লাস থেকে একটু আলাদা, অন্যান্য বিষয় খেয়াল রাখা আরও জরুরি। চেহারা অনুযায়ী কিংবা নিজের পছন্দমতো অনেকেই চিকন ফ্রেমের সানগ্লাস পছন্দ করেন। তাতে কোনো সমস্যা নেই। কারণ, চিকন ফ্রেমেও পাওয়া যাবে ট্রান্সপারেন্ট সানগ্লাস। প্রয়োজন শুধু মানানসই সাইজ এবং কালার সিলেকশন।

    ক্লাসি ব্লু
    সুপার ব্রাইট ব্লু লেন্সের সঙ্গে ইয়েলো বা গোল্ডেনের মতো ব্রাইট কালারের মোটা ফ্রেম, সহজেই যে-কারও নজর কাড়বে। তবে এমন সানগ্লাস পরতে গেলে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে, কী ধরনের পোশাক পরা হচ্ছে। এটি মানাবে প্যাস্টেল টি-শার্ট কিংবা স্টেটমেন্ট ব্লেজারের সঙ্গে। কিন্তু আউটফিট ডিপ নিওন শেডের কিংবা ভি-নেক টি-শার্ট হলে এই সানগ্লাস পরা ঠিক নয়।
    ওয়াইজ ওয়েফেরার
    ওয়েফেরার সানগ্লাস যেকোনো স্পেশাল ইভেন্টের জন্য সবচেয়ে ভালো। প্রাত্যহিক ব্যবহারেও জুতসই। এত দিনের ফ্যাশন ট্রেন্ডে সাধারণত ব্রাইট ভার্সাটাইল এবং কালারফুল ওয়েফেরার গ্লাস দেখা গেছে। এমনকি নিওন গ্লাসও। এখন ট্রান্সপারেন্ট ডিজাইনগুলোর মধ্যে ওয়েফেরার সবচেয়ে জনপ্রিয়। সানগ্লাস ব্র্যান্ডগুলোও বেশ কাজ করছে এসব নিয়ে। ক্যারেরা ৬০০০, ডলশে অ্যান্ড গ্যাবানা, ববি ব্রাউন, রে ব্যান ইত্যাদি ব্র্যান্ড ইতিমধ্যেই এনেছে বিশাল রেঞ্জের সানগ্লাস। এসবের মধ্যে ছেলে, মেয়ে কিংবা ইউনিসেক্স- সব ধরনের কালেকশনই রয়েছে।

    বেস্ট ম্যাটস
    অতিরিক্ত স্বচ্ছ সানগ্লাস কারও জন্য স্বস্তিকর না হলে তার জন্য ট্রান্সপারেন্ট ম্যাট সানগ্লাস। এই ট্রেন্ডে যা রহস্যময় আর স্মোকি ইফেক্ট আনে। অলিভার স্পেন্সার ব্র্যান্ডটি এ ধরনের সানগ্লাসের বেশ কিছু রেঞ্জ নিয়ে এসেছে বিশ্বজুড়ে। এগুলো মানানসই যেকোনো ক্যাজুয়াল আউটফিটের সঙ্গে।
    রাউন্ড অ্যান্ড রাউন্ড
    রাউন্ড গ্লাস কখনোই ‘আউট অব ট্রেন্ড’ হয় না। উৎসবের দিনগুলোয় এর বিকল্প হয় না। চতুষ্কোণ কিংবা গোলাকার যেকোনো মুখমন্ডলে মানিয়ে যায় পুরোপুরি গোলাকার কিংবা কিঞ্চিৎ গোলাকার ও রেট্রো শেপের চশমা। যেকোনো টি-শার্ট বা কনসার্ট লুকের সঙ্গে এ ধরনের গ্লাসে হয়ে ওঠা যায় ট্রেন্ডি ও ফ্যাশনেবল।

    ম্যান ইন দ্য মিরর
    রোদচশমা যদি হয় ট্রান্সপারেন্ট এবং আয়নাসদৃশ! এই আইডিয়া সানগ্লাস ব্র্যান্ড এলজিআরের। ব্র্যান্ডটির ডিজাইনার লুকা রুসকোন তার দাদার ওয়্যারহাউজে খুব পুরোনো সানগ্লাসের বাকশো থেকে খুঁজে পান ফ্রেমটি। মিররড কোবাল্ট লেন্স আর স্বচ্ছ রঙহীন ফ্রেম একে ব্যতিক্রমী করেছে। গ্রীষ্মের সমুদ্রসৈকত কিংবা সামার পার্টিতে এ ধরনের রোদচশমা সবচেয়ে মানানসই।
    দামদস্তুর
    গুচি, ডলশে অ্যান্ড গ্যাবানা, রে ব্যান ইত্যাদি ব্র্যান্ডের রেপ্লিকা অহরহ পাওয়া যায় সাধারণ দোকানগুলোতে। কিন্তু জায়গাভেদে রেপ্লিকার মাঝেও দেখা যায় কোয়ালিটির তফাত। এগুলোর প্রতিটির দাম ৩০০ থেকে ৫০০০ টাকার মধ্যে। এর চেয়েও কমে পেতে চলে যান নিউমার্কেটে। ১৫০ থেকে ২০০ টাকায় সেখানকার কালেকশনও কম নয়। তবে কোয়ালিটি নিয়ে কিঞ্চিৎ ঝক্কির শঙ্কা আছে। সাধারণত ৩০০০ থেকে ৫০০০ টাকার মধ্যে সানগ্লাসগুলো স্টাইলিশ ও টেকসই। পাবেন বসুন্ধরা সিটি, ইউনিমার্ট কিংবা যমুনা ফিউচার পার্কের দোকানগুলোতে। সেখানে আরেকটু কম বাজেটেও পেতে পারেন।

     শিরীন অন্না
    মডেল: মাহি
    মেকওভার: পারসোনা
    ছবি: তানভীর খান
    ওয়্যারড্রোব ও অ্যাকসেসরিজ: সিকোসো


    Subscribe & Follow

    JOIN THE FAMILY!

    Subscribe and get the latest about us
    TRAVELS
    LIFESTYLE
    RECENT POST
    ওজন কমাতে টেকার
    15 December, 2017 4:00 pm
    BANNER SPOT
    200*200
    SOLO PINE @ INSTRAGRAM
    FIND US ON FACEBOOK